ইসলাম গ্রহণ করলেন কানাডার জনপ্রিয় মডেল রোজি

ঢাকা: কানাডার পর্যটক ও মডেল রোজি গ্যাব্রিয়েল পাকিস্তানে ভ্রমনে গিয়ে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলেন। গত ১০ জানুয়ারি নিজের ইনস্টাগ্রাম পেজে ইসলাম গ্রহণের ঘোষণা দেন রোজি। এ বিষয়ে ইনস্টাগ্রামে একটি ছবি পোস্ট করেছেন রোজি।

যেখানে দেখা গেছে, মাথায় ওড়না এবং সেলোয়ার কামিজ পরিহিত হাস্যজ্জ্বল রোজি। অর্থাৎ মুসলিম সংস্কৃতির পোশাকে আবৃত তিনি। তার হাতে দ্য ম্যাসেজ অব কোরআন নামে একটি বই। কেন মুসলাম হয়েছেন সে বিষয়েও বিশদ ব্যাখ্যা দিয়েছেন এই কানাডিয়ান পরিব্রাজক।

তিনি জানান, গত এক দশক ধরে মুসলিম দেশগুলো ভ্রমণ করে ইসলামকেই একমাত্র শান্তির ধর্ম বলে মনে হয়েছে।

ইনস্টাগ্রামে রোজি আরো লিখেছেন, ‘ইসলামের ছায়াতলে আসার মতো এতো বড় সিদ্ধান্ত আমি কেন নিলাম? ২০১৯ সালটি ছিল আমার জীবনের অন্যতম কঠিনতম সময়। আমি ছোটবেলা থেকেই ষ্টিকর্তা আর তার সৃষ্টি নিয়ে ভাবতাম। সৃষ্টিকর্তার সঙ্গে সম্পর্ক অনুভব করতাম। কিন্তু আমার পথ কঠিন ছিল। কষ্ট পেলে ক্ষোভ থেকে সৃষ্টিকর্তাকে প্রশ্ন করতাম, কেন আমাকে তিনি কষ্ট দিচ্ছেন। শেষ পর্যন্ত আমি বুঝতে পেরেছি সব কিছুই নির্ধারিত, এমনকি আমার কষ্টগুলো আসলে তার দেয়া উপহার।

তিনি লেখেন, আমি চার বছর আগে আমার ধর্ম বিষয়ে আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছিলাম, আমি আমার সাবেক ধর্মের নিন্দা করতাম। তবে আমি এরইসঙ্গে আধ্যাত্মিকতার গভীরে প্রবেশ করেছিলাম। আর এভাবেই আমার যাত্রা শুরু হয়েছিল। সৃষ্টিকর্তা আমাকে পাকিস্তানে নিয়ে এসেছেন। আমার সেসব বেদনা ও অহংকার দূর করে দিয়েছেন। আমাকে সত্যের পথ দেখিয়েছেন।

তিনি জানান, গত এক দশক ধরে মুসলিম দেশগুলো ভ্রমণ করে ইসলামকেই একমাত্র শান্তির ধর্ম বলে মনে হয়েছে। ইসলাম যে শান্তির ধর্ম তার ব্যাখ্যায় রোজি গ্যাব্রিয়াল বলেছেন, দুর্ভাগ্যবশত ইসলামকে অনেক ভুল ধারণা পোষণ করছে পশ্চিমারা।

তিনি আরো বলেন, ইসলামের আসল অর্থ শান্তি, ভালবাসা এবং একত্ববাদ। অন্য সব ধর্মও শান্তির বার্তা দেয়। কিন্তু ইসলাম শুধু ধর্ম নয়, একটি জীবনবিধান। আমি এখন একজন ‘মুসলমান’। কলেমা শাহাদাতের মাধ্যমে আমি আল্লাহুর প্রতি নিজেকে উৎসর্গের করে মূলত একতা, সংযোগ এবং শান্তির পথে জীবন কাটানোর শপথ নিয়েছি। ’

এ দিকে, রোজি এই ইনস্টাগ্রাম পোস্টে তাকে ইসলামে দিক্ষিত হওয়ায় স্বাগত জানিয়েছেন অগণিত নেটিজেন। ইতিমধ্যে এক লাখ ২৪ হাজার লাইক পড়েছে পোস্টটিতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *