মতিঝিল ও বনশ্রী আইডিয়ালে মেয়েদের ওড়না পড়া নিষিদ্ধ

ঢাকা : প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে একটি আদর্শ পরিবেশ ও ভাল ফলাফল এর কারণে ঢাকার শীর্ষস্থানীয় কয়েকটি স্কুলের মধ্যে অন্যতম হয়ে উঠে মতিঝিল এবং বনশ্রী আইডিয়াল স্কুল।

সম্প্রতি গভর্নিংবডির কিছু সদস্য ও কিছু শিক্ষকদের ষড়যন্ত্রে ঐতিহ্য হারাচ্ছে স্কুলটি। এতোদিন স্কুলে মেয়েদের বড় ফ্রকের মতো গোল ঘের দেয়া জামা, সেলোয়ার ও হিজাব/ওড়না এবং ছেলেদের শার্ট-প্যান্টের সাথে সাদা টুপি ছিল ঐতিহ্যবাহী ইউনিফর্ম।

রোববার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া একজন অভিভাবক তার পোস্টে লিখেছেন, ‘কিন্তু ২০২০ সালের জানুয়ারি থেকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে ছেলেদের টুপি না পরলেও চলবে; আর মেয়েদের দুপাশে ফাঁড়া কামিজ ও সাদা ক্রসবেল্ট পরতে হবে। কোন মেয়ে ওড়না পরতে পারবে না। অথচ নোটিশে লেখা ছিল, ওড়না ঐচ্ছিক। কিন্ত এখন মেয়েদেরকে ওড়না পরে স্কুলে ঢুকতে দিচ্ছে না গার্ডরা। এমনকি মেয়েরা স্কুল গেট থেকে ব্যাগে করে ওড়না নিয়ে স্কুলে ঢোকার পর ক্লাশে আবার ওড়না পরলে, শারীরিক শিক্ষা বিষয়ক শিক্ষক প্রতি ক্লাশে গিয়ে মেয়েদেরকে ওড়না পরার কারণে ধমক দিচ্ছেন।

গত ৭ জানুয়ারি তারিখে মেয়েদেরকে ওড়না ছাড়া মাঠে নিয়ে প্যারেড করানো হয়েছে এবং শিক্ষকরা সেই ছবি ফেসবুকে আপলোডও করেছেন, শুধু তাই নয়, নতুন নিয়মে আইডি কার্ডের জন্যে ওড়না ছাড়া ছবি তুলতে বাধ্য করা হয়েছে, একজন শিক্ষকের ফেসবুক আইডি থেকে নীচের ছবিগুলো নিয়েছি।

একজন ছেলে টুপি না পরলে কোনো সমস্যা হয় নাই, কিন্তু একটি সাবালিকা মুসলিম মেয়েকে ওড়না পরতে বাঁধা দেয়া কি ধরনের অসভ্যতা। ৬ষ্ঠ থেকে ১০ম শ্রেনীর ছাত্রীরা তার পুরুষ শিক্ষকের সামনে ওড়না ছাড়া কিভাবে ক্লাশ করবে? এটা কোন মুসলিম দেশের সভ্য সংস্কৃতির অংশ হতে পারে না। আমরা বনশ্রী শাখার প্রধান শিক্ষকসহ অন্যান্য শিক্ষকদের কাছে প্রতিবাদ করেছি।তারা বলছেন, এটা গভর্নিং বডির সিদ্ধান্ত আমাদের কিছু করার নেই। একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ঐতিহ্য ধ্বংস ও মুসলমান ধর্মের রীতিনীতি বিরোধী কার্যকলাপের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *